ভ্রমন

অনলাইনে বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রেনের টিকিট বুকিং এবং ক্রয় সিস্টেম ২০২২

বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইন এর মাধ্যমে টিকিট বিক্রি করছে। যদিও 2022 সালের আগে অনলাইন টিকিট বিক্রি সিস্টেম একটু ভিন্ন ছিল,কিন্তু বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয় সিএনএস বিডি তার ওয়েবসাইটে, অনলাইনে ট্রেনের টিকিট বিক্রয় পরিচালনা করছেন। লোকজন সাধারণত অনলাইন টিকিট মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন বাংলাদেশ রেলওয়ে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট হতে সংগ্রহ করেন।

বর্তমানে অর্থাৎ 2022 সালের অনলাইন টিকেট এবং মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে আপনারা বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রেনের টিকিট কেনার অনুমতি পাবেন। ইতোমধ্যে তারা বাংলাদেশ রেলওয়েতে যে কোন নাম্বারে টিকেট অনলাইন বুকিং করে থাকেন তবে ভালো। আর যারা অনলাইনে ট্রেনের টিকিট বুকিং করতে পারেন না, তাদের জন্য আমাদের এই কনটেন্টে যথেষ্ট সামগ্রী রয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ে অ্যাপস মোবাইল ইন্সটল করেছেন। যেখান থেকে খুব সহজেই ট্রেনের টিকিট বুকিং এবং পেমেন্ট করা সম্ভব হয়। সুতরাং আপনি যদি ঘরে বসে ভিড়ের মধ্যে ঠেলাঠেলি না করে কাঙ্ক্ষিত ট্রেনের টিকেট পেতে চান? তবে আমাদের এই নিবন্ধটি আপনার জন্য শুভকামনা নিয়ে আসবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।

যে সকল যাত্রী তাদের কাঙ্ক্ষিত টিকিট ক্রয়ের জন্য সঠিক সিস্টেম জানেন না, তাদের জন্য যথেষ্ট সার্ভিস দিতে আমরা প্রস্তুত। তবে তার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। এখন কি তৈরি করা অনেক সহজ এবং সম্পূর্ন ফ্রি।

সর্বোপরি অ্যাকাউন্টটি তৈরি করতে আপনাকে কোন সার্ভিস চার্জ বহন করতে হবে না। আমাদের গুরুত্বপূর্ণ ভিজিটররা যাতে সহজেই ট্রেনের টিকিট পেয়ে যেতে পারেন, সেই সম্বন্ধে যাবতীয় দিক নিদর্শন এখানে উল্লেখ রয়েছে। সুতরাং ধাপে ধাপে গাইডলাইনটি পড়ুন এবং আপনাদের কাঙ্ক্ষিত সেবা বুঝে নিন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইন টিকিট রেজিস্ট্রেশন

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কেনার পূর্বশর্ত হচ্ছে রেজিস্ট্রেশন বা নিবন্ধন।আপনি যদি সঠিক ভাবে ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করতে পারেন তবে, আপনি ট্রেনের টিকিট কিনতে পারবেন। অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভিজিটর অনলাইনে ট্রেনের টিকেট নিবন্ধন সিস্টেম জানেন না।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট ক্রয়ের রেজিস্ট্রেশন সিস্টেম এখানে সুচারুভাবে আলোচনা করা হয়েছে। যা পড়ে টিকিট প্রত্যাশীরা সহজে নিবন্ধন করতে পারবেন। সুতরাং নিচের পদক্ষেপগুলো অনুসরণ করতে হবে। আপনি এই নিবন্ধটি সম্পন্ন করার পড়ে আপনি অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয়ের অনুমতি পাবেন।

তারপর আপনাকে লগইন বা সাইনআপ করতে হবে এবং পরবর্তী লিংক আপনাকে টিকিট পাওয়ার জন্য সহযোগিতা করবে। এখন আমরা আপনাদের টিকিট বুকিং এর প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করব। সুতরাং আমাদের সঙ্গেই থাকুন।

 মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কিভাবে কিনবেন?

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কেনার সম্পূর্ণ গাইডলাইন এখানে উপলব্ধ। আপনি জানেন যে বর্তমানে সরাসরি টিকিট কাউন্টারে গিয়ে টিকিট ক্রয় করা অনেক কষ্টকর। টিকেট ঘরে বসে করতে পারেন অনলাইনের মাধ্যমে।

যার জন্য আমাদের গাইড লাইন টি আপনাদের জন্য অনেক সহায়ক হবে, এবং আপনাদের কাঙ্খিত টিকিট ক্রয় করতে পারবেন।অনলাইনে মোবাইল,ল্যাপটপ এবং ট্যাপ এর মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করা যায়। আপনার যদি একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল থাকে এবং একটি জিমেইল লগইন করা থাকে তাহলে আপনি সহজেই বাংলাদেশ রেলওয়ে এর টিকেট কিনতে পারবেন.

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

এখানে বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইন টিকিট সিস্টেম ভিডিওর মাধ্যমে উপলব্ধ।যে ভিডিওটি ভিডিওটি দেখে আপনি অনায়াসেই আপনার কাঙ্ক্ষিত টিকিট ক্রয় করতে পারবেন। এ জন্য বিভিন্ন লিঙ্ক এবং তথ্য অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে যা আপনার জন্য প্রযোজ্য।

পদক্ষেপ 1: eSheba.cnsbd.com অ্যাকাউন্টে লগ ইন করুন

    • যে কোনও ইন্টারনেট ব্রাউজার থেকে আমাদের উল্লেখিত লিঙ্ক esheba.cnsbd.com দেখুন  ।
    • তারপরে আপনার ইমেল বা ফোন নম্বর এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্টে লগ ইন করুন।
    • সফল লগইনের পরে, আপনি টিকিট ক্রয়ের জন্য যোগ্য হবেন।

Check> এসএমএসের মাধ্যমে কিভাবে ট্রেনের অবস্থান জানবেন?

পদক্ষেপ 2: আপনার টিকিট বুকিংয়ের জন্য ট্রেনের নামটি সন্ধান করুন

2

  • প্রথমে আপনার স্টেশনের নাম [ফর্ম] নির্বাচন করুন। এটি আপনার স্টার্ট স্টেশন
  • এখন গন্তব্য স্টেশন নাম [থেকে] নির্বাচন করুন। এটি আপনার স্টপ স্টেশন
  • জার্নির তারিখ নির্বাচন করুন
  • টিকিট শ্রেণি নির্বাচন করুন [উদাহরণ: এস_চায়ার, স্নিগ্ধা, এসি_চায়ার]
  • আসন নির্বাচন করুন [ম্যাক্সিয়াম 4 আসন নির্বাচন করা যেতে পারে]
  • পরিশেষে, ফাইন্ড বাটনে ক্লিক করুন

ট্রেন এখন কোথায়- অ্যাপসের মাধ্যমে জানুন

পদক্ষেপ 3: ট্রেন নির্বাচন এবং টিকিটের নিশ্চয়তা

  • আপনি আপনার সূচনা স্টেশন থেকে গন্তব্য স্টেশন পর্যন্ত নির্বাচিত তারিখে উপলব্ধ ট্রেনের একটি সম্পূর্ণ তালিকা দেখতে পাবেন।
  • ট্রেনের নামের ডান দিক থেকে ” বিবরণ ” বোতামটি ক্লিক করুন
  • ” ক্রয় ” বোতামটি ক্লিক করুন; আপনি আপনার টিকিটের বিশদ মূল্য দেখতে পাবেন।
  • এখন ” টিকিট কিনুন ” বোতামটি ক্লিক করুন
  • আপনি শর্তাদি এবং শর্তাদি দেখতে পাবেন, নীচে স্ক্রোল করুন এবং ” আমি সম্মত ” তে ক্লিক করুন 
  • আপনি এখনই অর্থ প্রদানের জন্য উপলব্ধ পেমেন্ট পদ্ধতিটি দেখতে পাবেন।

পদক্ষেপ 4: অর্থের নিশ্চয়তা

3

  • আপনার টিকিট বুকিং সম্পন্ন হয়েছে এবং ক্রয়টি সম্পূর্ণ করার জন্য আপনাকে অর্থ প্রদান করতে হবে
  • আপনি যে টিকিট মূল্য প্রদান করতে চান তা উপলভ্য পেমেন্টে ক্লিক করুন
  • পছন্দসই পেমেন্ট গেটওয়ের নির্দেশ অনুসরণ করুন এবং আপনার অর্থ প্রদান সম্পূর্ণ করুন
  • অর্থ প্রদান সম্পন্ন হওয়ার পরে, আপনার টিকিটটি তাত্ক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হয়ে যাবে এবং আপনি নিজের টিকিটটি আপনার ড্যাশবোর্ডটি দেখতে পাবেন। এছাড়াও, আপনি টিকিটের পিডিএফ কপি সহ একটি ইমেল পাবেন যা আপনি সম্প্রতি কিনেছেন।

Check > রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী- 2022

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার সময় ২০২২

সাধারণত যাত্রার তারিখ থেকে 5 দিন আগে থেকে অনলাইনে মোবাইল,ল্যাপটপ এবং ট্যাপ এর মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করা যায়। কোন কোন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক এই সময় সকাল আটটা থেকে রাত দশটা পর্যন্ত লিখা থাকে। কিন্তু e-ticketing সেবা বহুল প্রচলিত বলে দিন রাত 24 ঘণ্টা ট্রেনের টিকেট অগ্রিম বুকিং করা যায়।

ট্রেনের টিকেট কাটার এপস

বাংলাদেশ রেলওয়ে ট্রেনের টিকিট বুকিং করার জন্য এন্ড্রয়েড মোবাইলে ‘রেল সেবা’ অ্যাপ ইনস্টল করে নিতে হবে। তারপর সেই অ্যাপস এর একটি একাউন্ট খুলতে হবে। একটি নির্দিষ্ট নাম্বার দিয়ে এবং পিন সেট করে আপনি সহজেই অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য অ্যাকাউন্ট ক্রিয়েট করতে পারেন। তারপর সেই অ্যাপস লগইন করে এবং পেমেন্ট মেথড সিলেক্ট করে মোবাইল এর মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট সংগ্রহ করতে পারবেন। 

এছাড়াও বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃক অনলাইনে বাসের টিকিট  বুকিং করার মত সিস্টেম চালু করা কথা আলোচনা হয়েছে। সে ক্ষেত্রে Shohoz.com হতে সহজেই ট্রেনের টিকেট বুকিং এবং ক্রয় করা সম্ভব হবে. যেহেতু এখনও এই সেবা কার্যকর হয়নি তাই আপনারা চাইলে https://esheba.cnsbd.com   ই- টিকেটিং ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট বুকিং করতে পারবেন. 

সতর্কতাঃ

  •  টিকিট ব্যতীত ট্রেনে ভ্রমণ করবেন না
  • টিকিটের গায়ে হস্তান্তরযোগ্য নয় লেখা থাকলেও ভয়ের কিছু নেই, একজনের টিকেট আরেকজন ব্যবহার করলেও সমস্যা নেই ।
  • গন্তব্য স্থানে পৌঁছানোর আগ মুহূর্ত পর্যন্ত ট্রেনের টিকেট সাথে রাখুন।
  • নিরাপদে ভ্রমণ করতে বাংলাদেশ রেলওয়ে  কর্তৃক দিকনির্দেশনা ফলো করুন। 

 লিংক >> এসএমএস এর মাধ্যমে যেকোনো ট্রেনের অবস্থান জানতে এখানে ক্লিক করুন!

পেমেন্ট ফেরত এবং গ্রাহক পরিষেবা

আপনি অনলাইনে টিকিট ক্রয় করেছেন কিন্তু কোন কারণে আপনার যাত্রা বিরতি থাকবে। তাহলে কি করবেন? অবশ্যই প্রেমেন্ট ফেরত চাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করবেন। হ্যাঁ অবশ্যই,জন্য আপনার হটলেন নাম্বারে যোগাযোগ করতে হবে। হট লাইন নম্বরটি নিচে উপলব্ধ। ভিসা মাস্টার কার্ড পেমেন্ট পেতে জন্য।তাছাড়া অসফল রিফাইন করার জন্য ডিবিবিল নেক্সাস এবং রকেট হেল্পলাইন নম্বর এবং বিকাশে রিফান্ড অনুরোধ জমা দিতে পারেন।

এছাড়াও যদি আপনি সরাসরি esheba.cnsbd.com এ যোগাযোগ করতে চান তো নিচের নম্বরগুলোর আপনার জন্যই। তাছাড়া আপনি আপনার কাঙ্খিত নম্বর ইমেইল করতে পারেন এবং কার্যদিবসের মধ্যে একটি ফোন কল করতে পারেন।
বলা দরকার যে, যেকোনো ধরনের সার্ভিস পেতে আপনার নিচের নম্বর গুলো জেনে রাখা প্রয়োজন।

VISA/MASTER Cards 16234
+88-02-8331040
Rocket / DBBL Nexus Cards 16216
bKash 16247
Tech Support Team esheba-ticket@cnsbd.com
+880-1401168806
(9:00 AM to 6:00 PM)

সুতরাং, সফলভাবে কেনা টিকিটের প্রকৃত মূল্য ফেরত পেতে আপনি সেই স্টেশনে যোগাযোগ করতে পারেন, যেখান থেকে আপনার যাত্রা করার কথা ছিল। তথ্যের জন্য কাউন্টারে যোগাযোগ করতে পারেন।

এছাড়াও তাৎক্ষণিকভাবে আপনাদের যদি বাংলাদেশ রেলওয়ের বিশদ সেবা পেতে চান, তবে আমাদেরকে কমেন্টের মাধ্যমে জানান। আমরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনাদের সকল তথ্য দিয়ে সেবা করব।

Check> নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী- 2022

 

Show More

মোঃ জাহিদুল ইসলাম

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম । 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button
Close