Finance

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার সহজ পদ্ধতি

বাংলাদেশের যে কয়েকটি ডিজিটাল আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান রয়েছে তার মধ্যে নগদ অন্যতম। আপনি যদি নগদ একাউন্ট নম্বর পরিবর্তন করতে চান অথবা নিজের ন্যাশনাল আইডি কার্ড দিয়ে একটি নগদ একাউন্ট এর বিপরীতে নিজস্ব নগদ একাউন্ট করতে চান তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনাকে সহযোগিতা করতে যাচ্ছে। এ আর্টিকেল এর ভেতরে আমরা বাংলাদেশ ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মোবাইল ফোন ভিত্তিক ডিজিটাল আর্থিক সেবা যা একটি অর্থ আদান-প্রদানের পরিষেবা নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এরঅ্যাকাউন্ট কিভাবে বন্ধ করা যায় সে বিষয়ে তথ্য শেয়ার করব। 

আপনারা জানেন যে, ইতোমধ্যে নগদ সম্পর্কে বিভিন্ন আলোচনা-সমালোচনা চলছে। সে যাই হোক নিজের অর্থ নিরাপদে এবং সহজলভ্য ভাবে আদান প্রদান করার জন্য নগদ একাউন্ট অনেক সময় ডিলিট করার প্রয়োজন হয়। নগদ একাউন্ট বাতিল করা পদ্ধতি জানার পাশাপাশি আমাদের গুরুত্বপূর্ণ ভিজিটর যাতে আর্থিক লেনদেন করতে  যাবতীয় প্রতারণা থেকে নিজেকে সেভ করতে পারি সে বিষয়ে বিশদ তথ্য  জানতে আমাদের পুরো আর্টিকেলটি  পড়ার চেষ্টা করুন।

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি আলোচনা করার পূর্বে কয়েকটি বিষয় জানা জরুরী। যেমন কি কারনে আপনি নগদ এখন বন্ধ করবেন, পুর্বে আপনার ন্যাশনাল আইডি কার্ডের মাধ্যমে নগদ একাউন্ট করা থাকলে এবং তার চেঞ্জ করতে কি কি করা লাগবে সে বিষয়ে।

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি: 

2019 সালে নগদ বাংলাদেশ ডিজিটাল আর্থিক পরিষেবা চালু করে। কিন্তু বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের সমালোচনা যেমন- বৃত্তির টাকা হাতিয়ে নেওয়া, ঋণের দায় ভার গ্রহণে অস্বীকৃতি এবং অনলাইন মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় ইত্যাদি কারণে নগদ একাউন্ট বন্ধ করার জন্য মানুষ অনলাইনে ব্যাপকভাবে  উপায় খোঁজ করছে।

যদিও আমাদের ওয়েবসাইট সেই সকল পরামর্শ দেয় না তবে সঠিক তথ্য উন্মোচনে গুরুত্বপূর্ণ ভিজিটরদের সহযোগিতা করে। যাই হোক,  নগদ একাউন্টে অন্য কারো ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ পাসপোর্ট দিয়ে করা হলে, অথবা যেই সিমে একাউন্ট খোলা আছে  সেটি এখন আপনার আন্ডারে নেই ইত্যাদি নানা কারণে নগদ একাউন্ট ডিলিট করার জন্য নিম্নোক্ত ধাপগুলো  অনুসরণীয়-

  • নগদ একাউন্ট বন্ধ করার জন্য আপনাকে নেশনাল আইডি কার্ড থাকতে হবে অর্থাৎ যে আইডি কার্ড দিয়ে আপনি নগদ একাউন্ট খুলেছেন.
  • আপনি যদি অন্য ডকুমেন্টটি নগদ একাউন্ট খুলে থাকেন তাহলে সেটির প্রদান হবে যেমন: পাসপোর্ট ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ইত্যাদি.
  • নগদ একাউন্ট বন্ধ করার প্রথম শর্ত বা কাজ আছে একাউন্টের ব্যালেন্স 0 বা জিরো করতে হবে.
  • যে অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে চান সেই একাউন্টের ব্যালেন্স অন্য একাউন্টে সেন্ড মানি করে জিরো করতে হবে.

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর  সেবাসমূহঃ

  • হিসাব খোলা
  • হিসাব এ টাকা জমা করা (ক্যাশ ইন)
  • একটি নগদ হিসাব থেকে অন্য নগদ হিসাব এ টাকা পাঠানো (সেন্ড মানি)
  • হিসাব থেকে টাকা উত্তোলন (ক্যাশ আউট)
  • মোবাইলে এয়ারটাইম ক্রয়/রিচার্জের সুবিধা
  • পণ্য কেনাকাটা বা সেবার বিনিময়ে মূল্য পরিশোধ করা (পেমেন্ট)
  • বিল পরিশোধের সুবিধা

নগদ একাউন্ট বন্ধ করার পূর্ব শর্তসমূহঃ

ঘরে বসে নগদ একাউন্ট খোলা যায় কিন্তু একাউন্ট বাতিল করা যায় না, তাই নিকটস্থ কাস্টমার কেয়ারে নগদ একাউন্ট বন্ধ করার জন্য  যেতে হবে।

১) ন্যাশনাল আইডি কার্ড/ পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স সাথে রাখতে হবে।

২) আপনি যে নম্বরটির একাউন্ট বাতিল করতে চান তার সাথে আনতে হবে।

৩) অন্য কোন নাম্বারে সেন্ড মানি করে একাউন্ট ব্যালেন্স জিরো করতে হবে ( ভগ্নাংশ থাকলেও সমস্যা নেই তবে সেন্ড মানি 5 টাকা মাথায় রাখতে হবে) 

প্রতারণা হতে বাঁচতে করণীয়ঃ

১) নিজের গোপন পিন নম্বর কাউকে দেবেন না অথবা লিখে রাখবেন না।

২) প্রতারকরা আপনাদের কাছে ভেরিফিকেশন কোড চাইলে দেবেন না।

৩) পিন নম্বর জানতে অনেক সময় গোপন পিন নম্বর এর সাথে যোগ বিয়োগ গুন ভাগ করতে  বললে করবেন না।

৪) অ্যাপস ব্যবহারের ক্ষেত্রে সর্তকতা অবলম্বন করতে হবে।

সবশেষে, নিজের পরিশ্রমের অর্থ নিরাপদে  রাখতে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট বন্ধ করার পদ্ধতি সহ বিভিন্ন তথ্য পেয়ে আশা করি আপনারা উপকৃত হয়েছেন।  এছাড়া কোন ধরনের প্রশ্ন জানা থাকলে কমেন্ট বক্সে আমাদেরকে কমেন্ট করে ফিডব্যাকের জন্য অপেক্ষা করতে  পারেন। ধন্যবাদ।

Show More

মোঃ জাহিদুল ইসলাম

আমি মোঃ জাহিদুল ইসলাম । 2018 সাল থেকে সমাজের অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, সামাজিক,মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি অবলোকন করে- জীবনকে পরিপূর্ণ আঙ্গিকে নতুন করে সাজানোর আশাবাদী। নতুনের প্রতি মানুষের আকর্ষণ চিরস্থায়ী- তাই নবরুপ ওয়েবসাইটে নিয়মিত লেখালেখি করি।
Back to top button
Close